জমি নিয়ে বিরোধের জেড়ে মা ও মেয়েকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন এক আওয়ামীলীগ নেতা। ঘটনাটি ঘটেছে বরগুনার বামনায়। অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম জমাদ্দার ৩নং বামনা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম জমাদ্দার। হামলার সময় তার সহযোগী হিসেবে ছিলেন রাজু জমাদ্দার।

মারধরের শিকার ওই নারীরা হলেন, ওই ইউনিয়নের উত্তর রামনা গ্রামের মৃত্যু ইউসুফ খানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম(৫৮) ও তার মেয়ে পারুল বেগম(৩৫)। গত রবিবার দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে একটি গোয়ালঘর উত্তোলনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামী লীগের ওই প্রভাবশালী নেতা ও তার গাড়ি চালক তাদের ওপর এ হামলা চালায়। গুরুতর আহত ওই মা ও মেয়েকে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও হামলাকারীদের বাধায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যায়নি। অবশেষে তারা ৯৯৯ নম্বরে কল করলে হামলার ৬ ঘণ্টা পরে বামনা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলাকারীদের কবল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমানে তারা বামনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে।

গুরুতর আহত পারুল বেগম জানান, তাদের পৈত্রিক সম্পত্তিতে একটি গোয়ালঘর নির্মাণের সময় সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ও তার সহযোগী রাজু এসে বাধা দেয়। তাদের দাবি ওই সম্পত্তি তাদের। পরে গত রবিবার দুপুরে সাবেক চেয়ারম্যান ও তার গাড়ি চালক এসে এলাপাথারি মা ও মেয়েকে পিটাতে থাকে এবং আহত অবস্থায় তারা হাসপাতালে যেতে চাইলেও বাঁধা দেয়। পরে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে।

এদিকে হামলার অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন নজরুল ইসলাম জমাদ্দার। তিনি বলেন, তার সম্পত্তি দখল করে ওই নারীরা গোয়ালঘর তুলছে। তিনি অনেক বার নিষেধ করলেও তারা তা ভ্রুক্ষেপ করেননি।

এ বিষয়ে বামনা থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ৯৯৯-এ কল পাওয়ার পরে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই দুই মা ও মেয়েকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তারা বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে এখন পর্যন্ত আহতদের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *